কলকাতা হাইকোর্টে গ্রুপ ডি নিয়োগ নিয়ে মামলা

কিছুদিন আগেই কলকাতা হাইকোর্টে গ্রুপ ডি পদের পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। কিন্তু ইতিমধ্যেই সেই নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে মামলা শুরু হল। এবং সেখানে যে প্রশ্নগুলো তোলা হয়েছে, তা সম্পুর্ন আইনী। বিচারপতি অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন,
এমন নিয়োগ সম্পর্কিত প্রাসঙ্গিক আইন ও অনান্য নথি ১২ ডিসেম্বর হাইকোর্ট প্রশাসন কে পেশ করতে হবে। এই মামলার ফলাফলের উপর ওই নিয়োগ প্রক্রিয়ার ভবিষৎ নির্ভর করছে।
২৮ সেপ্টেম্বরের, ২০১৮ এই নিয়োগের বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হয়। মোট শূন্যপদের সংখ্যা ছিল ২২১। এই নিয়োগ প্রক্রিয়া কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে একজন প্রার্থী মামলা করেছে। মামলাকারী প্রার্থীর তার পক্ষ থেকে তার আইনজীবী জানিয়েছে, ১৯৭৬ সালের সংরক্ষন আইন কে লঙ্ঘন করেই, তপশিলি জাতি ও উপজাতি দের কাছ থেকে পরীক্ষার ফী নেওয়া হয়েছে। স্নাতকরা পরীক্ষা দিতে পারবে না বলে জানানো হয়েছে। এমনকি ইন্টারভিউ এর জন্যে কদ নম্বর থাকবে জানানো হয় নি। জাতীয় স্তরের দু’টি গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পত্রে এই নিয়োগের কথা জানানো হয় নি।
জবাবে হাইকোর্ট প্রশাসনের আইনজীবী জয়দীপ কর বলেছেন, প্রতিটি অভিযোগের জবাব তার কাছে আছে। এি অবস্থায় মামলাকারীর দাবি মতো নিয়োগ প্রক্রিয়ায় স্থগিতাদেশ না দিয়ে আদালত বলেছে, মামলাটির গ্রহনযোগ্যতা পরে দেখা যাবে।